27 Feb

এফিলিয়েটিং উপার্জন শিখি ও মাসে সর্বনিম্ন ১০০$ ডলার আয় করি

কোন সিস্টেমে অনলাইন হতে অর্থ উপার্জন করা যাবে?
অনলাইনে অর্থ উপার্জন করার বেশ কয়েকটি মাধ্যম রয়েছে, প্রতিটা মাধ্যমেই কাজ করতে হবে। তবে আমার হিসাবে সহজ মাধ্যম হল কোন এডভাইটাইজিং হিসাবে কাজ করা যেমনঃ গুগল অ্যাডসেন্সসহ অন্যান্য পাবলিশার সাইট। এখানের সুবিধা হল প্রথম ২/১ বছর পরিশ্রমের পর শুধু বসে বসে উপার্জন। সহজ কথা মানে আপনার একটি ব্লগ সাইট থাকতে হবে, ভাল ভিজিটর থাকতে হবে এবং সেখানের অ্যাড দেখানোর মাধ্যমেই ভাল আয় করতে পারবেন। সুতরাং আজকের টিউটোরিয়ালের ১ম প্রকাশনা দেখাবো গুগল অ্যাডসেন্স হিসাবে।

২০১৭ সালে গুগল অ্যাডসেন্সের নতুন নিয়ম
গুগল সর্বদাই তাদের পলিসিনীতি পরিবর্তন করে। তবে এখন পাবলিশারদের জন্য সুখবর হল গুগল সহজেই তাদের একাউন্ট সক্রিয় করে দিবে। বিশেষত গুগলের নীতি সবাই জানেন তাই বিস্তারিত বলতে চাচ্ছিনা। গুগল পাবলিশার একাউন্ট সহজে পেতে হলে আপনাকে পেইড ডোমেইন ও হোস্ট নিতে হবে। এবং ভাল ভাল কিছু কপি রাইট মুক্ত কনটেন্ট তৈরি করতে হবে যেমন ৫০-৬০ টি টিউন। তবে যারা ব্লগারে ফ্রিভাবে সক্রিয় করতে চাইছেন সেখানে আমাদের বাংলাদেশীদের জন্য সহজে সক্রিয় নাও হতে পারে। আর হ্যা আপনার সাইটটি অবশ্যই একটু সাদামাটা হতে হবে।

গুগল অ্যাডসেন্ট পাইতে হলে করনীয়

আপনি যদি প্রথম অবস্থাতে অর্থ খরচ না করতে চান তাহলে ব্লগারে সাইট ওপেন করতে পারেন, ভাল ভিজিটর তৈরি হলে অতপর ডোমেইন ও হোস্টে কনভার্ট করতে পারেন। যদি অর্থ খরচ করার চুলকানি থাকে তাহলে ডোমেইন ও হোস্ট নেওয়াটাও বুদ্ধিমানের কাজ।
ডোমেইন একটু ভেবেচিন্তে নিবেন। কারোর কথাতে প্রচারিত হয়ে হুটহাট রেজি: করবেন না। কারন এমন কিছু ডোমেইন নিতে যাচ্ছেন যেটি পূর্বে কোন কারনে গুগল ব্লক করে রেখেছে। সুতরাং সাইট তৈরি হলে ইনডেক্স নাও হতে পারে। যে লাউ সেই কদু! ? অর্থাৎ ভাল এক্সপাট লোক দ্বারা চেক করে নিবেন। অবশ্য ডোমেইন বিষয়ে পরবর্তীতে কথা বলব।
যেহেতু সাইটটি গুগল অ্যাডসেন্স সহ অন্য এফেলিয়েটিং নিয়ে কাজ করবেন তাই ডোমেইন নিতে খাস বাংলা শব্দ ব্যবহার না করে একটু ইংরাজী শব্দ রাখবেন। বর্তমানে নিচি সাইট গুলো ভাল কাজ করছে। যেমন না হতে পারে taka click, cinemaclick, banglatea ইত্যাদি।
মনে করি ডোমেইন ও হোস্ট নিয়েছেন। খবরদার এখনো অ্যাডসেন্স পাবার জন্য আবেদন করবেন না। প্রথমত আপনার সাইটকে সাজান, কনটেন্ট তৈরি করুন। অতপর আপিল করলে দেখবেন অ্যাডসেন্স পাইয়েছেন। ডোমেইন ও হোস্ট দ্বারা তৈরি সাইটগুলো গুগল সহজে ইনডেস্ক হয় ও রেটিং ক্রেডিট বৃদ্ধি হয়।
কেমন সাইট হবে ডিজাইন হিসাবে?

প্রথমেই বলেছি গুগল অনেকটা সাদামাটা সাইট পচ্ছন্দ করে। সুতরাং রং-ঢাক মেখে কর্মাসিয়াল সাইটের মত হবার প্রয়োজন নাই।
সাইটে About, Privacy, Contact, sitemap ইত্যাদি অবশ্যই সংযোজন করতে হবে।
বেশী প্লাগিন ব্যবহার করে সাইট ভারি করার প্রয়োজন নাই।
থীমটি পেইড হলে ভাল হয় কিংবা কোন ডেভেলপার মাধ্যমে তৈরি করে নিতে পারেন। অবশ্য ওয়ার্ডপ্রেসে যে ডিফল্ট থীম থাকে সেখান হতে যে কোন একটি ব্যবহার করলে হবে।
আপনার সাইটটি যে কোন বিষয়ে করতে পারেন যেমন মুভি, ছবি, ভ্রমন, লেখাপড়া, প্রযুক্তি, খেলাধূলা, স্বাস্থ্যবটিকা যে কোন একটি মৌলিক বিষয়ে।
সাইট তৈরির পর আপনার ডোমেইনসহ অন্যান্য বিষয়াদি গুগল সহ অন্যান্য ওয়েব মাস্টারে ভেরিফাই করিয়ে নিতে হবে যেমনঃ ইয়াহু, বিং, ইয়ানডেস্ক ও এসইও করতে হবে।
আপনার সাধের ব্লগ সাইটের ডিজাইন কি ধরনের হবে তার Preview Image দেখতে ক্লিক করুন এখানে
সর্বশেষ
আলোচনা দীর্ঘতর হয়ে গেল। এখানেই থামাতে হচ্ছে। বাকি অংশগুলো ধারাবাহিকভাবে টিউটোরিয়াল/পর্ব হিসাবে আলোচনা করব। ও হ্যা আরেকটি কথা বলতে ভূলে গেছি আপনি যে নামে ডোমেইন নিচ্ছেন তার আশেপাশে অন্যান্য সাইটগুলো ইউজার নেমগুলোও একই হলে ১০০% ইউনিক হয়। যেমনঃ সাইটের নাম Mofiz Pagla (মফিজ পাগল) তাহলে অন্যান্য সোস্যাল সাইট যেমন টুইটার, ফেসবুক, ইমেইল, ডিগ, ইনস্টাগ্রাম, ভেমো, লিংকডেন নামগুলোও একই মাপের হলে আরো ভাল। ডোমেইন নাম Mofiz Pagla  কিন্তু অন্যগুলোতে ব্যবহার করছেন Mofiz Mama তাই না? ? তাহলে আজ এই পর্যন্তই, টিউনটি ভাল লাগলে টিউমেন্ট পাবার প্রত্যাশা রাখছি। ? সবাই ভাল থাকুন, আল্লাহ হাফেয- ?  ?

Share this

Leave a reply